Home মজিদ মাহমুদ

মজিদ মাহমুদ

Avatar of মজিদ মাহমুদ
জন্ম ১৬ এপ্রিল ১৯৬৬, পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার চরগড়গড়ি গ্রামে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতোকত্তোর। কবিতা তাঁর নিজস্ব ভুবন হলেও মননশীল গবেষণাকর্মে খ্যাতি রয়েছে। প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা ৪০ এর অধিক। উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে,
কাব্যগ্রন্থ- মাহফুজামঙ্গল (১৯৮৯), গোষ্ঠের দিকে (১৯৯৬), বল উপখ্যান (২০০০), আপেল কাহিনী (২০০১), ধাত্রী ক্লিনিকের জন্ম (২০০৫), সিংহ ও গর্দভের কবিতা (২০০৯), গ্রামকুট (২০১৫), কাটাপড়া মানুষ (২০১৭), লঙ্কাবি যাত্রা (২০১৯), শুঁড়িখানার গান (২০১৯)।
প্রবন্ধ ও গবেষণা- নজরুল, তৃতীয় বিশ্বের মুখপাত্র (১৯৯৭), কেন কবি কেন কবি নয় (২০০১), ভাষার আধিপত্য ও বিবিধ প্রবন্ধ (২০০৫), নজরুলের মানুষধর্ম (২০০৫), উত্তর-উপনিবেশ সাহিত্য ও অন্যান্য (২০০৯), সাহিত্যচিন্তা ও বিকল্পভাবনা (২০১১), রবীন্দ্রনাথ ও ভারতবর্ষ (২০১৩), নির্বাচিত প্রবন্ধ (২০১৪), সন্তকবীর শতদোঁহা ও রবীন্দ্রনাথ (২০১৫), ক্ষণচিন্তা (২০১৬)।
গল্প-উপন্যাস- মাকড়সা ও রজনীগন্ধা (১৯৮৬), সম্পর্ক (২০২০)। শিশু সাহিত্য- বৌটুবানী ফুলের দেশে (১৯৮৫), বাংলাদেশের মুখ (২০০৭)।

বাংলা সাহিত্যে কবিদের উপাধি ধারণ

বাংলা সাহিত্যে কবিদের উপাধি ধারন- মজিদ মাহমুদ তার প্রবন্ধে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর,করমচাঁদ গান্ধী,কাজী নজরুল ইসলাম থেকে শুরু করে আল মাহমুদ,সৈয়দ শামসুল হক,নূরুল হুদা থেকে মজিদ মাহমুদ পর্যন্ত টেনে এনেছেন। কিভাবে একেকজন স্ব স্ব উপাধি ধারন করে কিংবদন্তি হয়েছেন।

বৃক্ষ ও কবিতার কথা

বৃক্ষ ও কবিতার কথা- মজিদ মাহমুদ এই প্রবন্ধে বলেছেন মাতৃগর্ভে বসবাস করে যেমন মায়ের রূপ-দর্শন অসম্ভব তেমনি পৃথিবী তথা বিশ্বব্রহ্মান্ডের স্তন্যে লালিত মানুষ শত সহস্র বছরের চেষ্টায় কবিতায়ও দর্শন অসম্ভব।

নির্জন বিটপীর তলে ও অন্যান্য

বাড়ি আমার মুর্খতা-আমার বাড়ি বাড়ি কোথাও নেয় না, ফিরিয়ে আনে ঘুম থেকে জেগে দূর কোথাও যেতে চাই সারাদিন অবিশ্রান্ত চলার পর, রাত্রে যেখানে পাই-তার নাম বাড়ি বাড়ি আসলে অবাস্তব, মেটাফর মানুষ নিজেকে হারিয়েছিল যেখানে সেইসব চেনামুখ-গৃহস্থলি তৈজসপত্র ঘ্রাণ ও দৃশ্যের জগৎ যে কন্যা বাবা বলে ডেকেছিল যে নারী শুয়েছিল পাশে তাদের স্মৃতির ঘ্রাণ অন্ধ কুকুরের […]